এখন সময় :
,
PopularITLtd.com
মেনু |||

কিশোরের সঙ্গে ‘শারীরিক মিলন’ খোদ #মিটু আন্দোলনকারীর

#মিটু ক্যাম্পেইনের অন্যতম শক্তিশালী কণ্ঠস্বর ইটালীয় অভিনেত্রী আসিয়া আর্জেন্তো। কিন্তু এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি এক কিশোর অভিনেতার সঙ্গে ‘শারীরিক মিলন’ করেছিলেন।

নিউইয়র্ক টাইমস-এর প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে, এই ঘটনা যাতে প্রকাশ না হয় সেজন্য আদালতের বাইরে অর্থের বিনিময়ে মীমাংসার চেষ্টা করেছিলেন আসিয়া আর্জেন্তো। যে মাসে আর্জেন্তো #মিটু আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে হলিউডের প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। এর ঠিক পরের মাসেই জিম বেনেত নামের এক কিশোর আদালতের শরণাপন্ন হন আর্জেন্তোর বিরুদ্ধে তাকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ নিয়ে।

ঐ অভিনেত্রী যখন পরিচালকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, তখনই ‘আউট অফ কোর্ট সেটেলমেন্ট’ এর আওতায় কিশোরকে ৩ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার দিতে রাজি হন অভিনেত্রী। প্রথম দফায় গত বছরের এপ্রিলে তাকে ২ লাখ ডলার দিয়েছেন তিনি। তবে চুক্তিতে শর্ত ছিল ,এই ঘটনার কথা কোথাও কখনো উল্লেখ করা যাবে না।

অভিযোগ পত্রে বলা হয়েছে, ২০১৩ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার একটি হোটেলে আর্জেন্তো ও বেনেতের মধ্যে যৌন মিলন হয়। আর তখন বেনেতের বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর। ২০০৪ সাল থেকেই তারা একে অপরের পরিচিত। ঐ বছর আর্জেন্তো পরিচালিত একটি চলচ্চিত্রে শিশু অভিনেতা হিসেবে কাজ করেছিলেন বেনেত।

এদিকে রোববার নিউইয়র্ক টাইমসে ঐ প্রতিবেদন ছাপা হওয়ার পর সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সমালোচনার ঝড় ওঠে। মঙ্গলবার সাংবাদিকরা আর্জেন্তোকে এই অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি ব্যাপারটি বেমালুম অস্বীকার করেন। বলেন, বেনেতের সঙ্গে তার সম্পর্কটা বন্ধুত্বের, এর বেশি কিছু নয়।

কিন্তু বুধবার মুখ খোলেন জিমি বেনেত। ইনস্টাগ্রামে আর্জেন্তোর সঙ্গে তোলা একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন, তখন তার বয়স অল্প ছিল, তাই এই ঘটনা নিয়ে লজ্জায় এবং ভয়ে মুখ খোলেননি বলে উল্লেখ করেন তিনি।

Share Button
সম্পাদক: রিনি জাহান
নির্বাহী সম্পাদক : মো. কাইছার নবী কল্লোল
যোগাযোগ : ১/এ, (২য় তলা), পুরানা পল্টন লেন, ঢাকা-১০০০
ফোন নম্বর : ০১৬২১০৩৫২৮৯, ০১৬৩৪৭৩১৩৪২
Email: amadarshokal24@gmail.com