এখন সময় :
,
PopularITLtd.com
মেনু |||

কনজারভেটিভ পার্টির ঐতিহাসিক জয়

আমাদের সকাল ডেস্ক : ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যক আসনের ব্যবধানে জয় পেয়েছেন ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টি। আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা আল-জাজিরা জানিয়েছে, সরকারিভাবে ৬৫০ আসনের মধ্যে কনজারভেটিভ পার্টি পেয়েছে ৩৫৭টি, লেবার পার্টি পেতে পেয়েছে ১৯১টি আসন। তবে এখনো ১১টি আসনের ফলাফল ঘোষণা বাকি রয়েছে।

 

ব্রিটেনে সরকার গঠনে প্রয়োজন ৩২৬ আসন। আর ৩৫৭ আসন পেয়ে বিজয়ী হয়েছে বরিস জনসনের । এ জয়কে তিন দশকের মধ্যে টরিদের জন্য সবচেয়ে বড় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। অনেকে একে ঐতিহাসিক হিসেবে অভিহিত করেছেন।

 

এ জয়ের পেছনে কাজ করেছে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের চমক। বেক্সিট নিয়ে পার্লামেন্টে বিল পাসে ব্যর্থ হয়ে আগাম নির্বাচনের ডাক দেন জনসন।
শুক্রবার সকালে বিজয়ের আগাম বার্তা পেয়ে বরিস বলেন, ‘বেক্সিট সম্পূর্ণ করতে ভোটাররা তার সরকারকে নতুন করে জোরালোভাবে সমর্থন দিয়েছে।’

 

বরিস আরও বলেন, ‘আমি মনে করি এই নির্বাচন একটি ঐতিহাসিক নির্বাচন হিসেবে স্থান পেতে যাচ্ছে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে ব্রিটিশ জনগণের গণতান্ত্রিক ইচ্ছার প্রতি শ্রদ্ধা দেখানো, এ দেশের জনগণের মঙ্গল ও সমূহ সম্ভাবনার বিকাশ ঘটানোর সুযোগ দেয়া হয়েছে আমাদের।’ শুক্রবার সকালে নিজ আসন অক্সব্রিজ ও সাউথ রুইসলিপে যখন এমন মন্তব্য করেন জনসন, তখন বুথ ফেরত জরিপে জানা যায়, তার দল ৩৬৮ আসন পেতে যাচ্ছে।

 

‘ব্রেক্সিট সফল করুন’- এ স্লোগান দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালায় জনসন। আর এতেই বাজিমাত। বেক্সিটকে সমর্থন জানিয়ে জনসনের কনজারভেটিভ পার্টিকে ক্ষমতায় আনলো ব্রিটিশরা।

 

নির্বাচনে হেরে গিয়ে আগামী নির্বাচনে দলকে নেতৃত্ব না দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন। ভোট গণনার সময় নিজ আসন নর্থ লল্ডনের ইসলিংটনে করবিন জানান, তিনি ভোটের ফলাফলে খুব হতাশ। অন্তর্বর্তী সময়ের জন্য তিনি দলকে নেতৃত্ব দেবেন এবং আত্ম-বিশ্লেষণের পরেই দলের ভবিষ্যৎ ঠিক করা হবে।

 

ইপসোস মারিসের বুথ ফেরত জরিপ জানায়, ইউরোপীয় ইউনিয়নপন্থি লিবারেল ডেমোক্র্যাট পেতে পারে ১৩টি আসন। দলটির নেতা জো সুইনসন স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টির (এসএনপি) প্রার্থীর কাছে হেরে গেছেন। এসএনপি স্কটল্যান্ডে ৫৯টি আসনের ৫৫টি পেতে যাচ্ছে বলে বুথ জরিপ বলছে।

ভোটে ভালো করার পর এসএনপির নেতা নিকোলা স্টরজেন বলেছেন, স্কটল্যান্ডকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের করার অনুমোদন নেই বরিস জনসনের।

তিনি বলেন, ‘আমরা ব্রেক্সিট চাই না। বরিস জনসন ইংল্যান্ডকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের করে আনার জন্য জনসমর্থন পেতে পারে কিন্তু স্কটল্যান্ডের ক্ষেত্রে সেটি নয়।’

 

নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ায় ব্রিটেন থেকে বেরিয়ে যেতে এসএনপি দ্বিতীয়বারের মতো স্কটল্যান্ডে গণভোটের ডাক দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ২০১৪ সালের গণভোটে ৫৫ শতাংশ স্কটিশ ব্রিটেন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার বিপক্ষে রায় দেয়।

 

এমআইপি

সম্পাদক: রিনি জাহান
নির্বাহী সম্পাদক : মো. কাইছার নবী কল্লোল
যোগাযোগ : ১/এ, (২য় তলা), পুরানা পল্টন লেন, ঢাকা-১০০০
ফোন নম্বর : ০১৬২১০৩৫২৮৯, ০১৬৩৪৭৩১৩৪২
Email: amadarshokal24@gmail.com